• ঢাকা, বাংলাদেশ বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ০৫:১২ পূর্বাহ্ন
  • [কনভাটার]

নওগাঁয় ক্লু-লেস হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন

বিকাশ চন্দ্র প্রাং, নওগাঁ / ২০ বার পঠিত
আপডেট : রবিবার, ৩০ মে, ২০২১

নওগাঁর রাণীনগরে একটি ক্লু-লেস হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন, বিজ্ঞ আদালতে দুই আসামির স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী প্রদান ও লাশ বহনকারী একটি পিকআপ জব্দ করেছে পুলিশ।

রোববার (৩০ মে) দুপুরে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আবদুল মান্নান মিয়া বিপিএম।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার জানান, গত১৯ এপ্রিল রাণীনগর উপজেলার মিরাট ইউনিয়নের ধনপাড়া গ্রামের একটি পুকুরে এলাকাবাসি প্লাষ্টিকের একটি ড্রামের ভিতর অজ্ঞাত এক ব্যক্তির লাশ দেখতে পায়। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে এবং লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করে ময়না তদন্তের জন্য সদর হাসপাতালে পাঠান।

আরও পড়ুন : রাণীনগরে ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন

পুলিশ সুপার আরো জানান, এ ঘটনায় গ্রাম পুলিশ আব্দুল আজিজ বাদি হয়ে রাণীনগর থানায় একটি মামলা দায়ের করলে সেই মামলার প্রেক্ষিতে পুলিশ গুরুত্বের সাথে তদন্ত শুরু করে। তদন্তের এক পর্যায়ে নিহতের পরিচয় পাওয়া যায়। নিহতের নাম শহীদুল ইসলাম। সে আত্রাই উপজেলার বাউল্যাপাড়া গ্রামের সেকেন্দার আলীর ছেলে। পরে নিহতের পরিবারের কাছ থেকে জানা যায়, শহীদুল ১লাখ ৪০ হাজার টাকা নিয়ে ট্রাক্টর কেনার জন্য নওগাঁ শহরে যায়। কিন্তু পরবর্তীতে তার সাথে পরিবারের আর কেউ যোগাযোগ করতে পারে নাই।

তিনি আরো জানান এই ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে পুলিশ আত্রাই উপজেলার বাজেধনেশ্বর গ্রামের মমতাজ সরদারের ছেলে আলম সরদার (৩৫) ও বাউল্যাপাড়া গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে মামুনুর রশিদ ঋতু (২১) এবং মান্দা উপজেলার বড়পই গ্রামের ইয়াছিন দেওয়ানের ছেলে জুয়েল রানা ও বয়েন উদ্দিনের ছেলে বুলবুল হোসেন (৪৫) কে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর তাদের আদালতে সোপর্দ করে ২দিনের রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকান্ডের কিছু তথ্য পাওয়া যায়।

সেই তথ্যর ভিত্তিতে হত্যাকান্ডে জড়িত থাকায় মান্দা উপজেলার দূর্গাপুর মধ্য পাড়ার আব্দুস সামাদের ছেলে সজিব (২৩) এবং দূর্গাপুর সোনারপাড়া গ্রামের বাহার আলীর ছেলে সোয়েল রানা (২৫) কে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাদের জিঞ্জাসাবাদে শহীদুলকে একটি ভাড়া বাসায় হত্যা করে তার কাছে থাকা টাকা নিয়ে মান্দার সতীহাট থেকে একটি পিকআপে করে ড্রামের ভিতর ভরে লাশটি উক্ত স্থানে ফেলে রেখে চলে আসে। পরে শনিবার আসামীরা পুলিশের কাছে এবং আদালতে নিজেদের হত্যাকান্ডের জড়িত থাকার ১৬৪ ধারা স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি প্রদান করেন।

আরও পড়ুন : প্রধানমন্ত্রী অত্যন্ত সফলভাবে দেশের উন্নয়নকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন: কৃষিমন্ত্রী

সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ একেএম মামুন চিশতী ও সদর সার্কেল আবু সাঈদ, রাণীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহিন আকন্দ, নওগাঁ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোশারফ হোসেন জুয়েলসহ পুলিশের অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


এই ধরনের আরও সংবাদ

পুরাতন সব সংবাদ

SatSunMonTueWedThuFri
   1234
12131415161718
19202122232425
2627282930  
       
     12
10111213141516
       
  12345
6789101112
13141516171819
2728293031  
       
  12345
6789101112
13141516171819
2728     
       
      1
16171819202122
23242526272829
3031     
   1234
       
  12345
27282930   
       
29      
       
1234567
2930     
       

বিজ্ঞাপন

error: Content is protected !!