পশ্চিমবঙ্গে চিকিৎসক ধর্মঘট : বিপাকে লক্ষাধিক রোগী

পশ্চিমবঙ্গে চিকিৎসক ধর্মঘট : বিপাকে লক্ষাধিক রোগী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ::
জুনিয়র ডাক্তারকে নিগ্রহের ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দাবি পূরণের আশ্বাসের পরও পশ্চিমবঙ্গে চলছে চিকিৎসক ধর্মঘট। টানা ছয় দিন ধরে চলা এই আন্দোলনে পুরোপুরি ভেঙে পড়েছে রাজ্যের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা। যে কারণে চরম বিপাকে পড়েছেন সেখানকার লক্ষাধিক রোগী।

যদিও আন্দোলনরত চিকিৎসকদের দাবি, তারা মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে সরাসরি আলোচনায় বসতে রাজি আছেন। মূলত এর অংশ হিসেবে পরিস্থিতি উত্তরণের জন্য শনিবার (১৫ জুন) স্থানীয় সময় রাতে চিকিৎসকদের সকল দাবি পূরণ এবং তাদের দ্রুত কাজে ফেরার আহ্বান জানান মুখ্যমন্ত্রী।

যেখানে তিনি শিক্ষানবিশ চিকিৎসকের লাঞ্ছনাকে একটি উত্তেজনার বশে হয়ে যাওয়া ঘটনা বলে দাবি করেন। যদিও মমতার এ দাবি খণ্ডন করে হামলাকে একটি পরিকল্পিত ও সংগঠিত বলছেন চিকিৎসকরা। যে কারণে এ দিন মুখ্যমন্ত্রীর সরাসরি আশ্বাসে নরম হওয়ার পরিবর্তে এই ধর্মঘট প্রত্যাহারের আবেদন নাকচ করে দেন বিক্ষুব্ধ চিকিৎসকরা।

এমন পরিস্থিতিতে দেশের সকল ডাক্তারদের কাছে এই ধর্মঘট প্রত্যাহারের জোর অনুরোধ জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন। তাছাড়া চিকিৎসক নিগ্রহকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণেও দেশের সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বরাবর চিঠি পাঠিয়েছেন তিনি।

এর আগে গত বৃহস্পতিবারই (১৩ জুন) পশ্চিমবঙ্গের এনআরএস মেডিক্যাল কলেজে রোগীর স্বজনদের হাতে একজন জুনিয়র চিকিৎসক আহত হলে ন্যায়বিচারের দাবিতেই শুরু হয় এই বিক্ষোভ। তখন ডাক্তাররা কর্মবিরতিতে গেলে মমতা তাদের কাজে ফিরতে ‘হুঁশিয়ারি’ দেন, আর এরপরই কঠোর অবস্থান নিয়েছে আন্দোলনকারী চিকিৎসকরা।

মূলত এর অংশ হিসেবে চিত্তরঞ্জন ন্যাশনাল মেডিক্যালসহ রাজ্যের প্রায় সব হাসপাতালেই শুরু হয় ইস্তফার প্রক্রিয়া। যেখানে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে এই পদত্যাগী চিকিৎসকদের সংখ্যা। ইস্তফা দিয়েছেন বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সুপার। শুক্রবার (১৪ জুন) সিউড়ি হাসপাতালের সুপার শোভন দে বলেন, ‘চিকিৎসকরা ইস্তফা দিবেন বলে শুনেছি। কিন্তু এখনো আমার কাছে কারও কোনো ইস্তফার চিঠি আসেনি।’

এমন পরিস্থিতিতে শনিবার (১৫ জুন) দুপুর পর্যন্ত চারজন অধ্যক্ষসহ অন্তত সাত শতাধিক চিকিৎসকের ইস্তফা দেওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তাছাড়া দেশটির চিকিৎসকদের সবচেয়ে বড় সংগঠন ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (আইএমএ) আগামী সোমবার (১৭ জুন) গোটা ভারতজুড়ে সকল হাসপাতালে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন। এ সময় একমাত্র জরুরি বিভাগ ছাড়া বাকি সব ধরনের চিকিৎসা সেবা বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছে সংগঠনটির নেতারা।
নজিরবিহীন এই পরিস্থিতিতে গোটা পশ্চিমবঙ্গের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ভেঙে পড়ার শঙ্কা তৈরি হয়েছে। যে কারণে দ্রুত পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ভুক্তভোগী রোগীর স্বজনরা।
Jobs legislation includes $30 billion meant to prevent teacher layoffs printer-friendly email article reprints comments cheap essay papers googletag.

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© এই পোর্টালের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্ব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design BY NewsTheme
error: Content is protected !!