ভারতের চন্দ্রযান-২ যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

ভারতের চন্দ্রযান-২ যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

:: প্রযুক্তি ডেস্ক ::

ভারতীয় মহাকাশযান চন্দ্রযান-২ নিখোঁজ। মহাকাশযানটি চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে অবতরণের কথা ছিল। তবে চাঁদে অবতরণের মাত্র কয়েক সেকেন্ড আগেই ল্যান্ডারের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে চন্দ্রযানটি।

শুক্রবার (৬ সেপ্টেম্বর) রাত ১টা ৫৫ মিনিটের পর এটি নিখোঁজ হয়।

ওই সময় কন্ট্রোল রুমে বসে সবকিছু পর্যবেক্ষণ করছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তাকে পুরো পরিস্থিতি সম্পর্কে জানিয়েছেন ইসরোর বিজ্ঞানীরা। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বিজ্ঞানীদের বলেন, এটা জীবনের উত্থান ও পতন। এটা কম কৃতিত্ব নয়। আমি আপনাদের অভিন্দন জানাই। আপনারা সবাই দেশ, বিজ্ঞান ও মানুষের জন্য দারুণ কাজ করেছেন। সব প্রচেষ্টাতেই আমি আপনাদের সঙ্গে আছি। আপনারা সাহসের সঙ্গে এগিয়ে চলুন।

এর আগে রাত দেড়টা থেকে আড়াইটার মধ্যবর্তী সময়ে অবতরণের আগে মূল অরবিট থেকে আলাদা হয়ে যায় ল্যান্ডার বিক্রম। তারপর বেশ কয়েকটি ধাপ পাড়ি দেয় এটি। শেষের কিছুক্ষণ সময়কে ‘আতঙ্কের ১৫ মিনিট’ হিসেবে ব্যাখ্যা করেছে ইসরো। চন্দ্রপৃষ্ঠ থেকে মাত্র ২.১ কিলোমিটার দূরে থাকা অবস্থায়ই এর যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

ইসরোর প্রধান কৈলাসাভাদিভো শিবান বলেন, বিক্রম ল্যান্ডার ছিল পরিকল্পিত এবং ২.১ কিলোমিটার পর্যন্ত স্বাভাবিক লাগছিল। পরবর্তীতে পৃষ্ঠের সঙ্গে ল্যান্ডারের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এ বিষয়ে তথ্য বিশ্লেষণ করা হচ্ছে। চন্দ্রযান-২ কে ইসরোর করা সব অভিযানের মধ্যে সবচেয়ে জটিল বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

পরিকল্পনা মাফিক যদি সব কিছু এগিয়ে যেত, তাহলে সকাল সাড়ে ৫টা থেকে সাড়ে ৬টার মধ্যে বেরিয়ে পড়ত রোভার। ১৪ দিন সময়ের মধ্যে চাঁদের সম্পদের খোঁজ করা, পানির সন্ধান করা এবং উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ছবি সংগ্রহের কাজ করত রোভার।

যে এলাকায় বিক্রমের অবতরণের কথা ছিল, সেখানে এখনও পর্যন্ত কোনও যান নামেনি। এর আগে যেগুলো চাঁদে গিয়েছে সেগুলো হয় উত্তারাংশে নাহলে নিরক্ষীয় অঞ্চলে।

উত্তরাংশে চীন অনেক আগে একটি মিশন চালিয়েছে, পরে রাশিয়া। যুক্তরাষ্ট্রের চন্দ্রযানের মধ্যে এপোলোও ছিল চাঁদের নিরক্ষীয় অঞ্চলে। চাঁদের অন্ধকার অংশে চীনের একটি রোভার রয়েছে।

চাঁদে ধীরে ধীরে অবতরণের ক্ষেত্রে চতুর্থ দেশ হিসেবে উঠে আসতে পারত ভারত। তার আগে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া এবং চীন। গত ২৩ জুলাই অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীহরিকোটা থেকে উৎক্ষেপণ করা হয় চন্দ্রযান-২। দ্বিতীবারের চেষ্টায় এক মিনিটের মধ্যে সেটিকে উৎক্ষেপণ করা হয়। তার এক সপ্তাহ আগে অবতরণের ৫৬ মিনিটের মাথায় প্রথমবারের উৎক্ষেপণ বাতিল হয়।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© এই পোর্টালের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্ব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design BY NewsTheme
error: Content is protected !!