টাঙ্গাইলে বাবা ফিরল জীবিত হয়ে, ছেলে আসল লাশ হয়ে

টাঙ্গাইলে বাবা ফিরল জীবিত হয়ে, ছেলে আসল লাশ হয়ে

:: টাঙ্গাইল প্রতিনিধি ::

টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার ধুবড়িয়ার কুষ্টিয়া গ্রামের মো. উজ্জল মিয়া মাদক মামলায় রাতে পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হওয়ার পরদিন সকালে ছেলে বিপ্লব মিয়ার (১৫) গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে নাগরপুর থানা পুলিশ।

নিহতর পরিবার সূত্রে জানা যায়, উজ্জ্বল মিয়া স্ত্রী-সন্তান নিয়ে ঢাকায় বসবাস করেন। মহান বিজয় দিবসের ছুটিতে পরিজন নিয়ে রোববার (১৫ ডিসেম্বর) গ্রামের বাড়িতে আসেন । মাদক মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা থাকায় সোমবার (১৬ ডিসেম্বর) রাতে কাঁচপাই মোড় থেকে নাগরপুর থানা পুলিশ উজ্জল মিয়াকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারের খবর শুনেব উজ্জল মিয়ার স্ত্রী বীথি আক্তার তার ছেলে বিপ্লবকে বাড়িতে রেখে থানায় স্বামীকে দেখতে যান। বাড়ি ফিয়ে ছেলে বিপ্লবকে না পেয়ে বিভিন্নস্থানে খোঁজাখুজি করতে থাকেন। কিন্তু ছেলের কোন সন্ধান না পেয়ে বাড়ি ফিরে আসেন।

পরদিন সকালে বীথি আক্তার তার স্বামী উজ্জল মিয়ার জামিন আবেদন করার জন্য টাঙ্গাইল আদালতে যান। এদিকে মঙ্গলবার (১৭ ডিসেম্বর) সকালে ধুবড়িয়ার কুষ্টিয়া বিলের পাশে সরিষাক্ষেতে ছেলে বিপ্লবের গলাকাটা মরদেহ পড়ে থাকতে দেখেন এলাকাবাসী।

নাগরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) আলম চাঁদ বলেন, দুর্র্বৃত্তরা রাতের কোন এক সময় বিপ্লবকে গলা কেটে হত্যা করে। হত্যার পর লাশ উপজেলার কুষ্টিয়া বিলের পাশে নির্জন সরিষাক্ষেতে ফেলে রেখে যায়। পরে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্বার করে ময়না তদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© এই পোর্টালের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্ব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design BY NewsTheme
error: Content is protected !!