সর্বশেষ:
পাকিস্তানের দোসর-তাঁবেদাররা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও গণহত্যার স্মৃতি মুছে ফেলতে তৎপর রয়েছে : কৃষিমন্ত্রী ‘ঝাল মুড়ি বিক্রি করে জীবন চলে মর্জিনা বেগমের’ উন্নয়নশীল দেশে উত্তোরণে মহাদেবপুর থানা পুলিশের আনন্দ উদযাপন মহাদেবপুরে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উদযাপন আজ ঐতিহাসিক ৭ মার্চ বাংলাদেশের ঝুঁড়ি এখন খাদ্যে পরিপূর্ণ :কৃষিমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে পৃথিবীতে মর্যাদার আসনে উন্নীত করেছেন : কৃষিমন্ত্রী বারহাট্টায় আগুনে নিঃস্ব পরিবার মহাদেবপুরে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠির মাঝে উন্নত জাতের বকনা গরু বিতরণ ‘মধুপুর পৌর নির্বাচনে জনগণ নির্বাচিত হয়েছে : নব-নির্বাচিত মেয়র’
ডিসি সুলতানা’র অবৈধ ১১ বিঘা জমি উদ্ধার

ডিসি সুলতানা’র অবৈধ ১১ বিঘা জমি উদ্ধার

:: নিউজ বুক প্রতিবেদক ::

কুড়িগ্রাম থেকে প্রত্যাহার করা জেলা প্রশাসক (ডিসি) সুলতানা পারভীনের পরিবারের দখলে অবৈধভাবে থাকা ১১ বিঘা জমি উদ্ধার করা হয়েছে। আদালতের নির্দেশে ফিরে এ জমি বুঝিয়ে দেয়া হযেছে আমিরুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি ও তার স্বজনদের।

বুধবার পঞ্চগড়ের সহকারী জজ আদালতের নির্দেশে পুলিশ ও আদালতের সেরেস্তাদার ঢাকঢোল পিটিয়ে জমির দখল বুঝিয়ে দেন আমিরুলদের।

এই জমিগুলো এতদিন সুলতানা পারভীনের দাপট দেখিয়ে তার বাবা ও স্বজনরা অবৈধভাবে নিজেদের দখলে রেখেছিলেন। প্রায় ১৫ বছর ধরে এই জমি মূল মালিকের বেদখলে ছিল।

আদালতসূত্রে জানা গেছে, পঞ্চগড় সদর উপজেলার হাফিজাবাদ ইউনিয়নের জিয়াবাড়ি গ্রামের আমিরুল ইসলাম ও তার স্বজনরা পৈতৃক সূত্রে পাওয়া ১১ বিঘা জমি দীর্ঘদিন ধরে ভোগদখল করে আসছিলেন। কিন্তু সুলতানা পারভীনের বাবা মোহাম্মদ আলী ও স্বজনরা ডিসির ক্ষমতা দেখিয়ে ওই জমি জবরদখল করে ভোগ করে আসছিলেন।

এ ঘটনায় আমিরুল ও তার স্বজনরা আদালতে মামলা করলে নিম্নআদালতে তাদের পক্ষে রায় দেন। পরে সুলতানার বাবা ও স্বজনরা হাইকোর্টে আপিল করলে আদালত তাদের আপিল খারিজ করে দেন। অবশেষে দীর্ঘ ১৪ পর আদালত ডিসির স্বজনদের অবৈধ দখলে থাকা ১১ বিঘা জমি আমিরুল ইসলাম ও তার স্বজনদের কাছে দখল বুঝিয়ে দেন।

এ বিষয়ে আমিরুল ইসলাম বলেন, ১৩ বছর ধরে মামলা চালানোর পর আদালত আমাদের পক্ষে রায় দেন এবং আদালতের নির্দেশে আমরা ১১ বিঘা জমি বুঝে পেলাম।

পঞ্চগড় সহকারী জজ আদালতের নাজির মো. তমিজ উদ্দিন জানান, আদালতের নির্দেশে আমরা ঢাকঢোল পিটিয়ে জমির মালিকদের জমি বুঝিয়ে দিয়েছি।

উল্লেখ্য, গত ১৩ মার্চ মধ্যরাতে কুড়িগ্রামের সাংবাদিক আরিফুল ইসলামকে বাড়ি থেকে জোর করে ধরে এনে নির্যাতনের পর দণ্ড দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। এ ঘটনায় ডিসি সুলতানার সম্পৃক্ততা উঠে এসেছে প্রাথমিক তদন্তে। পরে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সুলতানাকে প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নেয়।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© এই পোর্টালের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্ব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design BY NewsTheme
error: Content is protected !!