সর্বশেষ:
বগুড়ায় বাসের চাপায় সিএনজির ৪ যাত্রী নিহত ধনবাড়ীতে পিকআপ ভ্যান ও ট্রলির মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত -১ : আহত ৫ ‘ঘরই কাল হলো লাকির’ সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে বগুড়ায় সাংবাদিকদের মানববন্ধন বীর মুক্তিযোদ্ধা কয়েস উদ্দীনকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন চলে গেলেন বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ পৌর নির্বাচনে বগুড়ায় সৎ ও যোগ্য প্রার্থীকে নির্বাচিত করতে সুজনের পদযাত্রা ও মানববন্ধন সাপাহারে অবৈধভাবে লাইসেন্স ছাড়াই চলছে ২২ টি স’মিল মান্দায় বঙ্গবন্ধু’র ম্যুরাল নির্মান কাজের উদ্বোধন সাপাহারে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন
বেগম মতিয়া চৌধুরীর অন্য রকম প্রতিবাদ

বেগম মতিয়া চৌধুরীর অন্য রকম প্রতিবাদ

ফাইল ফটো-

:: নিস্বজ প্রতিনিধি ::

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য অগ্নিকন্যা বেগম মতিয়া চৌধুরী। প্রতি ঈদেই তিনি দুস্থ অসহায়দের পাশের্^ দাঁড়ান ঈদ উপহার নিয়ে। করোনার গ্রাসে সারা বিশ্বের মতো বাংলাদেশের মানুষও ঈদ আনন্দ থেকে বিরত রয়েছে। করোনায় বিপন্ন দেশ, বিষন্ন মানুষ। মতিয়া চৌধুরী কৃষি মন্ত্রী থাকাকালে কৃষিতে ঘটিয়েছেন বিপ্লব।

উৎপাদন বেড়েছে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে অনেক বেশি। যার ধারাবাহিকতায় আজ খাদ্যের ঘাটতি নেই দেশে। করোনার থাবায় মানুষ কর্মহীন। হাতে নেই অর্থ। বেগম মতিয়া চৌধুরীর চিন্তাও ভিন্ন। করোনা পরিস্থিতির শুরু থেকেই মতিয়া চৌধুরীর পরামর্শ ও সিদ্ধান্তক্রমে দলীয় নেতৃবৃন্দ তাদের ব্যক্তিগত তহবিল থেকে মানবিক সহায়তা হিসেবে নকলা নালিতাবাড়ীতে কর্মহীন অসহায় ও দরিদ্রদের নগদ অর্থ প্রদান করে পাশের্^ দাঁড়ান।

এমন পরিস্থিতিতে দুস্থদের কথা চিন্তা করে মতিয়া চৌধুরীর আগমন ঘটে তাঁর নির্বাচনী এলাকায়। তিনি সরকারী গাড়ী ব্যবহার না করে নিজ¯^ ভাড়ার গাড়িতে ঢাকা থেকে সরাসরি নালিতাবাড়ী আসেন গত ১৭ মে। গত ১৭ ও ১৮ মে নিজ নির্বাচনী এলাকা নকলা-নালিতাবাড়ীর পৌরসভাসহ সবকটি ইউনিয়নে তিনি মানবিক সহায়তা হিসেবে ব্যক্তিগত তহবিল থেকে মোট ৩৬৮০ জন দুস্থদের মাঝে ৭ লাখ ৩৬ হাজার টাকা ঈদ উপহার হিসেবে বিতরণ করেন। এখানেই শেষ নয়।

গত ১৮ মে সোমবার পোড়াগাঁও ইউনিয়ন থেকে বিতরণ শেষে বেগম মতিয়া চৌধুরী রওয়ানা হন রামচন্দ্রকুড়া ইউনিয়নের উদ্দেশ্যে। মাত্র তিন কিলোমিটার রাস্তা পারি দিলেই তিনি পৌঁছবেন রামচন্দ্রকুড়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে। যেতে হবে নাকুগাঁও সেতুর উপর দিয়ে। বালু খেকুদের বালু উত্তোলনে সম্প্রতি সেতুর পাইল থেকে সরে যায় মাটি। সেতুর উপর দিয়ে ১০ টনের বেশি ওজনের যানবাহন চলাচল না করার আইন থাকলেও আইন অমান্য করে বালু খেকুরা। ১০ চাকার বালুভর্তি শতশত ট্রাক প্রায় ৪০/৫০ টন ওজন নিয়ে চলতে থাকে সেতুটি দিয়ে।

ফলে খসে যায় সেতুর ছাদ। প্রতিবাদ করে চেয়ারম্যান মেম্বার সহ সচেতন ব্যক্তিরা। সেতু কর্তৃপক্ষ শাক দিয়ে মাছ ঢাকে সেতুর ছাদে। কোনো রকমে ছাদটি মেরামত করে। ঝুকিপূর্ণ অবস্থায় সেতুটির উপর দিয়ে আবার চলতে থাকে বালুভর্তি ট্রাক।

এ অবস্থায় গত ১৮ মে সোমবার বেগম মতিয়া চৌধুরী তাঁর বিতরণকার্য সম্পন্ন করতে সীমান্ত সড়কে হঠাৎ গতিপথ পরিবর্তন করে মাত্র ৫ মিনিটের রাস্তায় না গিয়ে প্রায় ২৫ কিলোমিটার সড়ক ঘুরে (প্রদক্ষীন) রামচন্দ্রকুড়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে গিয়ে হাজির হন।

বিশ^স্ত সুত্রে জানা গেছে, বেগম মতিয়া চৌধুরী এই সেতুটির এমনদশা হওয়ার কারণে তিনি মৌন প্রতিবাদ করে ২৫ কিলোমিটার রাস্তা ঘুরে রামচন্দ্রকুড়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে পৌঁছেন।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© এই পোর্টালের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্ব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design BY NewsTheme
error: Content is protected !!