সর্বশেষ:
পাকিস্তানের দোসর-তাঁবেদাররা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও গণহত্যার স্মৃতি মুছে ফেলতে তৎপর রয়েছে : কৃষিমন্ত্রী ‘ঝাল মুড়ি বিক্রি করে জীবন চলে মর্জিনা বেগমের’ উন্নয়নশীল দেশে উত্তোরণে মহাদেবপুর থানা পুলিশের আনন্দ উদযাপন মহাদেবপুরে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উদযাপন আজ ঐতিহাসিক ৭ মার্চ বাংলাদেশের ঝুঁড়ি এখন খাদ্যে পরিপূর্ণ :কৃষিমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে পৃথিবীতে মর্যাদার আসনে উন্নীত করেছেন : কৃষিমন্ত্রী বারহাট্টায় আগুনে নিঃস্ব পরিবার মহাদেবপুরে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠির মাঝে উন্নত জাতের বকনা গরু বিতরণ ‘মধুপুর পৌর নির্বাচনে জনগণ নির্বাচিত হয়েছে : নব-নির্বাচিত মেয়র’
বারহাট্টায় অনুদানের চেক গ্রহণ না করেই চলে গেলেন ৩১৮ ইমাম

বারহাট্টায় অনুদানের চেক গ্রহণ না করেই চলে গেলেন ৩১৮ ইমাম

:: নিজস্ব প্রতিবেদক ::

নেত্রকোণার বারহাট্টায় করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ পরিস্থিতিতে মসজিদসমূহকে দেয়া সরকারী অনুদানের চেক গ্রহণ না করে ফিরে গেলেন ৩১৮ ইমাম। এই চেক বিতরণ উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন ও ইসলামীক ফাউন্ডেশন কর্তৃক সোমবার স্থানীয় উন্নয়ন কেন্দ্র হলে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার গোলাম মোরশেদ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুহাম্মদ মাইনুল হক কাসেম । অন্যান্যের মধ্যে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন আজাদ ও শাহিনুর আক্তার সায়লা, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপজেলা ফিল্ড সুপারভাইজার ফজলুল করিম ফারুকী ও উপজেলার ৩১৮টি মসজিদের ইমামগণ উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায়, অনুষ্ঠান শুরুর আগেই হলে উপস্থিত ইমামগণের মধ্যে কেউ কেউ তাদের মিথ্যে কথা বলে এখানে আনা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন। এই পরিস্থিতিতেই পবিত্র কোরআন থেকে তিলাওয়াতের মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়। অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ফজলুল করিম ফারুকী শুরুতেই ইমামগনের আপত্তির বিষয়টি সুরাহার জন্য উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও নির্বাহী অফিসারের প্রতি আহবান জানান।

উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার উভয়ই সরকারী অনুদানের চেক গ্রহণ করার জন্য ইমামগণকে অনুরোধ করেন। তারা চেক গ্রহণ করেন নাই।

সাধুয়ারকান্দা এগার-বাড়ি জামে মসজিদের ইমাম মোঃ জিয়াউদ্দিন, দশদার জামে মসজিদের ইমাম মোঃ লুৎফর রহমান, লাউফা জামে মসজিদের ইমাম হাফেজ জালাল উদ্দিন, বারহাট্টা স্টেশন রোড জামে মসজিদের ইমাম মোঃ আবু তাহেরসহ অন্যান্য মসজিদের ইমামগণ বিডি নিউজ বুক টোয়েন্টিফোর ডট নেটকে বলেন, ইমামদেরকে টাকা দেয়া হবে বলে মোবাইল করে এখানে আনা হয়েছে।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন থেকে মোবাইল করা হয়। অনুষ্ঠানের ব্যানারে লিখা দেখে জানা যায় যে, টাকা দেয়া হবে মসজিদকে। তাই ইমামগণ চেক গ্রহণ করেন নাই। ইমামগণ বলেছেন যে, মসজিদকে দেয়া অনুদানের চেক আপনারা মসজিদ কমিটির সভাপতি বা সেক্রেটারীর হাতে দেবেন। ইমামগণ মিথ্যে কথা বলে তাদের হয়রানী করার জন্য ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপজেলা ফিল্ড সুপারভাইজার ফজলুল করিম ফারুকী বিডি নিউজ বুক টোয়েন্টিফোর ডট নেটকে বলেন, ইমামগণ ভুল বুঝেছেন। তাদেরকে মসজিদের চেক নেয়ার জন্য মোবাইলে অনুরোধ করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার গোলাম মোরশেদ বিডি নিউজ বুক টোয়েন্টিফোর ডট নেটকে বলেন, ইসলামিক ফাউন্ডেশন কর্তৃক উপজেলার ৩১৮টি মসজিদের প্রতিটির অনুকুলে ৫ হাজার টাকার চেক বিতরণের জন্য প্রস্তুত ছিল। এ নিয়ে কিছু ভুল বুঝাবুঝি হয়েছে। আমরা দুঃখ প্রকাশ করেছি। ইমামগণ অনুদানের এই চেক মসজিদ কমিটির লোকজনের হাতে দেয়ার কথা বলেছেন। সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© এই পোর্টালের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্ব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design BY NewsTheme
error: Content is protected !!