সর্বশেষ:
‘মহাদেবপুরে এবার গম চাষে বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা’ বগুড়ায় বাসের চাপায় সিএনজির ৪ যাত্রী নিহত ধনবাড়ীতে পিকআপ ভ্যান ও ট্রলির মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত -১ : আহত ৫ ‘ঘরই কাল হলো লাকির’ সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে বগুড়ায় সাংবাদিকদের মানববন্ধন বীর মুক্তিযোদ্ধা কয়েস উদ্দীনকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন চলে গেলেন বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ পৌর নির্বাচনে বগুড়ায় সৎ ও যোগ্য প্রার্থীকে নির্বাচিত করতে সুজনের পদযাত্রা ও মানববন্ধন সাপাহারে অবৈধভাবে লাইসেন্স ছাড়াই চলছে ২২ টি স’মিল মান্দায় বঙ্গবন্ধু’র ম্যুরাল নির্মান কাজের উদ্বোধন
ভূঞাপুর যমুনা নদীতে অবাধে চলছে মা মাছ নিধন

ভূঞাপুর যমুনা নদীতে অবাধে চলছে মা মাছ নিধন

:: টাঙ্গাইল সংবাদদাতা ::

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে যমুনা নদীতে পানি বৃদ্ধির সাথে বেড়েছে মা মাছের সংখ্যা। জেলেদের পাশাপাশি স্থানীয় মৎস্য শিকারীরা বিভিন্ন পন্থায় মাছ শিকার করছে যমুনা নদী থেকে। এতে মা মাছগুলো ধরা পড়ছে বেশি। যদিও নিধনের বিষয়ে কার্যকর কোন উদ্যোগ নেয়নি উপজেলা মৎস্য অফিস।

জানা গেছে, উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল আর টানা বৃষ্টিতে যমুনা নদীতে পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে বিভিন্ন এলাকার মৎস্য খামার ও পুকুর তলিয়ে গিয়ে মাছগুলো যমুনা নদীতে চলে আসছে। ঝাঁকে ঝাঁকে নদীতে চলে আসা এসব মানুষ শিকার করছে জেলে ও মৎস্য শিকারীরা। এতে মা মাছ ধরা পড়ছে বেশি। যদিও নদীতে এ সময়ে বিভিন্ন প্রজাতি মাছের প্রজনন ও বংশ বিস্তার করে এই মৌসুমে। সম্প্রতি গত বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার খানুরবাড়ী এলাকার কয়েকজন মৎস্য শিকারী যমুনা নদী থেকে ২৬টি মা বোয়াল মাছ শিকার করে।

স্থানীয়রা জানায়, মা মাছ নিধনের আইনের প্রয়োগ না থাকায় যমুনা নদীর ভূঞাপুর অংশে বিভিন্ন এলাকার জেলে ও মৎস্য শিকারীরা মা মাছ ধরে নিধন করছে।
উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, এ উপেজলায় তালিকাভুক্ত ও কার্ডধারী প্রায় ১ হাজার ২’শ জেলে পরিবার রয়েছে। জেলে তালিকায় অন্তভুক্তে বাহিরে প্রায় ৬’শ জেলে আবেদন করে রেখেছেন। এদের মধ্য বেশী ভাগই জেলের ১৮ বছর না হওয়ায় তালিকায় অন্তভুক্ত করা হয়নি। তবে এবছর যাচাই-বাচাই করে জেলেদের তালিকাভুক্তের আওতায় আনা হবে।

আরও পড়ুন : নওগাঁ- ৬ আসনের সংসদ সদস্য ইসরাফিল আলমের মাতার ইন্তেকাল

ভূঞাপুর উপজেলা মৎস্য কার্যালয়ের কর্মকর্তা ড. মো. হাফিজুর রহমান জানান, এ উপজেলার যমুনা নদীর অংশে পানি বৃদ্ধিতে মা মাছগুলো অল্প পানিতে চলে আসছে। শুধু ইলিশ মাছ ছাড়া সাধারণত আষাঢ় মাসে বিভিন্ন মা মাছ প্রজনন ও পোনা দেয়। এসময়ে যেসব জেলেরা মাছ নিধন করবে তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ ব্যাপারে ভূঞাপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আসলাম হোসাইন জানান, মা মাছ নিধনরোধেও বিভিন্ন আইন রয়েছে। কিন্তু উপজেলা মৎস্য কার্যালয়ের কর্মকর্তা এব্যাপারে উপজেলা প্রশাসনকে অবহিত করেনি।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© এই পোর্টালের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্ব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design BY NewsTheme
error: Content is protected !!