সর্বশেষ:
‘ঘরই কাল হলো লাকির’ সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে বগুড়ায় সাংবাদিকদের মানববন্ধন বীর মুক্তিযোদ্ধা কয়েস উদ্দীনকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন চলে গেলেন বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ পৌর নির্বাচনে বগুড়ায় সৎ ও যোগ্য প্রার্থীকে নির্বাচিত করতে সুজনের পদযাত্রা ও মানববন্ধন সাপাহারে অবৈধভাবে লাইসেন্স ছাড়াই চলছে ২২ টি স’মিল মান্দায় বঙ্গবন্ধু’র ম্যুরাল নির্মান কাজের উদ্বোধন সাপাহারে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন অমর একুশে স্মরণে টাঙ্গাইল মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদের শ্রদ্ধাঞ্জলি পাইস্কা উচ্চ বিদ্যালয় ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষার দাবীতে আলোচনা সভা
মানবেতর জীবন-যাপন করছেন সাংবাদিক এম দুলাল

মানবেতর জীবন-যাপন করছেন সাংবাদিক এম দুলাল

এস আই সুমন- :: বগুড়া ::

যে মানুষ প্রতিদিন সংবাদ সংগ্রহ করে দেশ ও জাতির স্বার্থে কাজ করে আসছে, আজ সে নিজেই ভুক্তভোগী। নিজের বসত দেওয়াল ঘর বৃষ্টিতে ভিজে ধ্বসে পড়ে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন।
জানা যায়, বগুড়া সদর উপজেলার নুনগোলা ইউনিয়নের আশোকোলা পূর্বপাড়া গ্রামের বাসিন্দা মৃত ওমর আলী মন্ডল এর পুত্র।

বর্তমান নামুজা -বুড়িগঞ্জ প্রেসক্লাবের যুগ্ন সম্পাদক, সাংবাদিক আনিছার রহমান দুলাল।

সে পেশায় একজন সাংবাদিক। অনেকেই জানেন যে মফস্বল সাংবাদিকতায় কোন বেতন ভাতা নেই। সারাদিন তিনি সংবাদের পিছু ছুটে সামান্য কিছু সম্মানী পেয়ে স্ত্রী সন্তান নিয়ে পূর্বপুরুষের ভিটামাটিতে তৎকালীন মাটির দেওয়ালের বাড়িতে বসবাস করেন। কালক্রমে বর্তমানে মাটির বাড়ি বৃষ্টির পানিতে ধ্বসে পড়ে। অনেকটা ফাঁটল ধরলেও জীবনের ঝুঁকি নিয়েই তার নিচে পরিবার নিয়ে বসবাস করতেন।

অর্থের অভাবে তিনি ঘর-দরজা মেরামত করতেও পারতেন না। গত ১মাস পূর্বে তাঁর পাশের দেওয়াল ঘর ধ্বসে পড়ে। সেটিতে তিনি কোন মতে বাঁশ, খুটি দিয়ে আটকে রেখে তার নিচ দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বসবাস করত।

শনিবার (১২সেপ্টেম্বর) সকালে বৃষ্টির সময় হঠাৎ তার শয়নকক্ষের মাটির দেওয়াল ভেঙ্গে পড়ে। এসময় সাংবাদিক দুলাল স্ত্রী- সন্তানদের নিয়ে চিৎকার করে প্রাণ বাঁচাতে বৃষ্টিতে ভিজেই বাহিরে বের হয়।

এবিষয়ে সাংবাদিক দুলালের সাথে কথা বললে তিনি মনে আক্ষেপ নিয়ে জানান, দীর্ঘদিন ধরে সাংবাদিকতা করে আসছি। আমার সাথের অনেক সাংবাদিকেরা অনেকেই জমিজমা ও দালান কোঠা তৈরী করেছেন। কিন্তু আমি সৎ উপায়ে চলছি বলে আজ আমার এই কষ্ট।

পরিবারে আর্থিক সংকটের কারণে আমি আমার ঘরবাড়ি নির্মাণ ও সফলতা আনতে পারিনি। পারিনি আমার সংসারে অভাব-অনটন দূর করতে। তিনি কষ্টশয্যিত হয়ে বলেন, আমার থাকার একমাত্র ঘর ধ্বসে পড়ে গেছে।

বর্তমানে তিনি মানবেতর জীবন যাপন করছেন।সংসার চালানো তার পক্ষে খুবই কষ্টকর।

এমতাবস্থায় তার প্রতি সাহায্যে সহায়তা সদয় অবগতি ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারি ভাবে বগুড়া জেলা প্রশাসন জিয়াউল হক,সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবু সুফিয়ান সফিক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আজিজুর রহমান সহ স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল আলিম এর নিকট আকুল আবেদন জানিয়েছেন।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© এই পোর্টালের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্ব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design BY NewsTheme
error: Content is protected !!