সাগরে জাল ফেলতেই ধরা পড়ছে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ

সাগরে জাল ফেলতেই ধরা পড়ছে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক চট্রগ্রাম ::

সাগরে প্রচুর পরিমাণ ইলিশ ধরা পড়ছে। কোরবানির ঈদের পরেরদিন থেকে পূর্ণিমার তিথি গণনার দিন থেকে শনিবার পর্যন্ত ইলিশ ধরা পড়ছে উল্লেখ করার মতো। নগরীর ফিশারীঘাট, কাট্টলীঘাট, ফৌজদারহাট, পতেঙ্গা, ১৫ নং ঘাটসহ সবখানেই ইলিশের সমাগম ঘটেছে। গভীর সাগরে জেলেরা জাল ফেলতেই এবার ধরা পড়ছে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ।

তাই গভীর সাগরে যারা ট্রলারে করে ভাসমান জাল দিয়ে রূপালী ইলিশ শিকার করে তাদের মুখে হাসির ঝিলিক দেখা দিয়েছে।

নগরীর ফিরিঙ্গীবাজার ও কর্ণফুলীর তীরবর্তী ফিশারিঘাটে এখন ইলিশের মহোৎসব চলছে। ট্রলারের মালিক থেকে মাঝি-মাল্লা এবং আড়ৎদার থেকে তাদের সহকারী কারোরই এখন দম ফেলবার মতো ফুরসৎ নেই। ছোট-বড় সব আকারের ইলিশ পাওয়া যাচ্ছে ঘাটে। সাগরের গভীর থেকে বিপুল পরিমাণ ইলিশ আহরিত হলেও বাজারে সে তুলনায় দাম কমছে না। তাই জেলেদের এবং গদিওয়ালাদের এখন ফুরফুরে আমেজ। কিন্তু সাধারণ ক্রেতা যারা একটু দাম পড়লে নিজেদের জন্য এবং আত্মীয়-স্বজনের জন্য ইলিশ কিনে থাকেন, তারা এখনও সন্তোষমনে নেই।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এক কেজি ওজনের প্রতিটি ইলিশ বিক্রি হচ্ছে এক হাজার থেকে ১২শ’ টাকায়। আবার কেজির নিচের সাইজের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ৭ থেকে ৮শ’ টাকায় এবং আধাকেজি আকারের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে কেজিপ্রতি ৪ থেকে ৫শ’ টাকা করে। আবার মানভেদে কিছু ছোট ইলিশ বিক্রি হচ্ছে সাড়ে তিনশ থেকে ছয়শ টাকা পর্যন্ত। সামনে ইলিশের দাম আরো কমবে বলে মনে করছেন আড়ৎদাররা।

ফিশারিঘাটের আড়ৎদার আবদুল খালেক জানান, এখন ইলিশের ভরা মৌসুম চলছে। তবে বড় ইলিশের যে পরিমাণ দাম কমার কথা এবার সে পরিমাণ দাম কমেনি। সামনে কিছুটা কমতে পারে। ফিশারি ঘাট থেকে এখন প্রতিদিন কয়েক হাজার টন ইলিশ দেশের বিভিন্ন স্থানে পাঠানো হচ্ছে।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© এই পোর্টালের কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্ব অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design BY NewsTheme
error: Content is protected !!